আইন তো ভুল দেখাচ্ছেন আপনারা সরকারকে ফখরুল

উপচার ডেস্ক : বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে যেতে না দেওয়ার জন্য সরকারের উদ্দেশে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘বিদেশে পাঠিয়ে তাঁর চিকিৎসার জন্য দাবি জানাচ্ছি। শান্তিপূর্ণভাবে এই দাবি জানাচ্ছি। আমরা বুঝি না, মাথায় আসে না, সমস্যাটা কোথায়? কেন আইনের কথা বলছেন? আইন তো ভুল দেখাচ্ছেন আপনারা।’ আজ রোববার রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে স্বেচ্ছাসেবক দলের বিক্ষোভ সমাবেশে মির্জা ফখরুল এসব কথা বলেন। খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং তাঁর বিদেশে চিকিৎসার দাবিতে আট দিনের কর্মসূচির একটি ছিল স্বেচ্ছাসেবক দলের এই সমাবেশ।মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, দেশে শান্তি ও স্থিতিশীলতা চাইলে এবং সত্যিকার অর্থে গণতন্ত্রকে প্রতিষ্ঠা করতে চাইলে, তা শুধু খালেদা জিয়াই পারবেন। তিনি সুস্থ হয়ে ফিরে সরকারের দুর্নীতির বিরুদ্ধে দাঁড়াবেন এবং মানুষের অধিকার

আদায় করবেন, তাই সরকার তাঁকে মুক্তি দিতে চায় না এবং বাইরে চিকিৎসা করতে দিতে চায় না। শুধু সরকারই খালেদা জিয়াকে বিদেশে চিকিৎসা করতে পাঠাতে পারে জানিয়ে আগের কয়েকজন নেতাকে জেল থেকে বিদেশে পাঠানোর উদাহরণ টানেন বিএনপি মহাসচিব। তিনি বলেন, ‘খালেদা জিয়াকে আমাদের দরকার। শুধু বিএনপির জন্য নয়। তাঁকে দরকার ১৮ কোটি মানুষের জন্য। একমাত্র নেত্রী, যিনি গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনতে পারেন।স্বেচ্ছাসেবক দলের অনেক নেতা–কর্মী গুম হয়ে গেছেন এবং অনেকে অসংখ্য মামলা নিয়ে কষ্টের মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন বলে জানান মির্জা ফখরুল। তিনি বলেন, ‘এক দিন–দুদিন নয়, ১২ বছর হয়ে গেছে। আজকে শুধু বিএনপি নয়। সমগ্র দেশের মানুষ একটা কারাগারে আছে। একটুও শান্তি নেই, স্বস্তি নেই। কেউ হাসিমুখে কথা বলে না। কেউ নিরাপদে রাস্তায় বের হতে পারে না। জীবন-জীবিকা চালাতে পারে

না।’ তিনি আরও বলেন, খালেদা জিয়া, অত্যন্ত অসুস্থ, গুরুতর অসুস্থ। প্রতিদিন চিকিৎসকেরা তাঁর জীবন রক্ষার জন্য পরিশ্রম করছেন।শিক্ষার্থীদের বাসে হাফ পাসের দাবিতে আন্দোলনের প্রতি সমর্থন জানিয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেন, কী উন্নয়ন করেছেন? বাসভাড়া কমানোর দাবিতে ছেলেমেয়েরা রাস্তায় নেমেছে। তাদের হাফ পাস দিতে হবে। তাদের লেখাপড়ার খরচ এখন অনেক বেশি। নিম্ন–মধ্যবিত্ত বা মধ্যবিত্তরা সংসার চালাতে হিমশিম খাচ্ছে। আওয়ামী লীগের নেতাদের পকেট ভারী করার জন্য বাসভাড়া বাড়ানো হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।সরকারি পরিবহনে হাফ পাস করা গেলেও বেসরকারি পরিবহনে করা না প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল বলেন, বেসরকারি

খাতের মোবাইল কোম্পানি, বেসরকারি ব্যবসা খাত নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে সরকার। কিন্তু দুই-তিন হাজার কোটি টাকা ভর্তুকি সরকার পরিবহন খাতে কেন দিতে পারবে না, সে প্রশ্ন রাখেন তিনি। ভর্তুকি দিয়ে হলেও শিক্ষার্থীদের হাফ পাসের ব্যবস্থার আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপির এই নেতা।স্বেচ্ছাসেবক দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন বিএনপির ঢাকা উত্তরের আহবায়ক আমান উল্লাহ আমান, যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু, কৃষকদলের সভাপতি হাসান জাফির, স্বেচ্ছাসেবকবিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফত আলী, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েলসহ প্রমুখ।

এই রকম আরও খবর দেখুন

সর্বশেষ আপডেট

অ্যার্কাইভ ক্যালেন্ডার
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১