খালেদা জিয়ার চিকিৎসা দেশে সম্ভব নয়: ফখরুল

উপচার ডেস্ক : বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, নানাবিধ শারীরিক জটিলতা নিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া গতকাল রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তার এখন যে শারীরিক অবস্থা, তার চিকিৎসা দেশে সম্ভব নয়। সে কারণে তাকে দ্রুততম সময়ের মধ্যে বিদেশ নিতে হবে।

বুধবার (১৩ অক্টোবর) হাসপাতালে ভর্তি খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার বিষয়ে এক আলোচনাসভায় এ কথা বলেন তিনি। ফখরুল বলেন, খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসকরা বলছেন, দেশে খালেদা জিয়ার পূর্ণাঙ্গ চিকিৎসা সম্ভব নয়। এখানে মাল্টি চিকিৎসা নেই। তাই তাকে বিদেশ নিতে হবে। তারপরও সরকার কেনো তাকে তার ন্যায্য জামিন দিচ্ছেন না? এই প্রশ্নের পাশাপাশি তিনি খালেদা জিয়ার জামিনও দাবি করেন।

মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) বিকেলে গুলশানের বাসা ‘ফিরোজা’ থেকে খালেদা জিয়াকে বসুন্ধরার এভারকেয়ার হাসপাতালে নেওয়া হয়। চিকিৎসকদের পরামর্শেই বিএনপি চেয়ারপারসনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানান তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক অধ্যাপক এজেডএম জাহিদ হোসেন। তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য তাকে ভর্তি করা হয়েছে। বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক শাহাবুদ্দিন তালুকদারের নেতৃত্বে মেডিকেল বোর্ড খালেদা জিয়ার চিকিৎসার দেখভাল করছেন।

৭৬ বছর বয়সী খালেদা জিয়া বহু বছর ধরে আর্থ্রাইটিস, ডায়াবেটিস ও চোখের সমস্যায় ভুগছেন। গুলশানের বাসা ফিরোজায় অবস্থানের সময় গত এপ্রিলে তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। করোনা-পরবর্তী জটিলতায় ২৭ এপ্রিল তাকে এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হাসপাতালে তার শ্বাসকষ্ট দেখা দিলে তাকে সিসিইউতে নেওয়া হয়। প্রায় দুই মাস তিনি সিসিইউতে চিকিৎসাধীন ছিলেন। পরে ১৯ জুন মেডিকেল বোর্ড বাসায় নিয়ে চিকিৎসার জন্য খালেদা জিয়াকে ছাড়পত্র দিলে হাসপাতাল ছেড়ে তিনি বাসায় যান।

এই রকম আরও খবর দেখুন

সর্বশেষ আপডেট

অ্যার্কাইভ ক্যালেন্ডার
সোমমঙ্গলবুধবৃহশুক্রশনিরবি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১