গোদাগাড়ীতে চেয়ারম্যান ও মেম্বারের প্রকাশ্য সহযোগিতায় অসহায় পরিবারের বাড়ি দখল

ওয়াসিম আল-রাজি: রাজশাহী গোদাগাড়ীর রিশিকুল ইউপির আ’লীগ মনোনিত চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম টুলু ও মেম্বার কামাল সরকারের প্রকাশ্য সহযোগীতায় অসহায় পরিবারের বসতবাড়ি দখলের অভিযোগ পাওয়া গিয়েছে l
সূত্রে জানা যায় গিয়াস উদ্দিন ও তাঁর পরিবারের অনান্য সদস্যরা ঢাকায় কর্মরত থাকার সুযোগে ভূমিদস্যু কাজিমউদ্দিন(৩৫) চেয়ারম্যান টুলু ও মেম্বার কামালকে জাল ষ্ট্যাম্প করে দেখিয়ে মোটা অংকের ঘুষ প্রদান করলে চেয়ারম্যান টুলু বিনা প্রতিবন্দকতায় কাজিমউদ্দিনকে বাড়ি দখলের নির্দেশ দিলে বিবাদি কাজিমউদ্দিন তাঁর দলবল নিয়ে বাড়ির প্রকৃত মালিক গিয়াসউদ্দিনের অনুপস্হিতে বাড়িটি দখল করে নেয়l
এরপর গড়িয়েছে অনেক সময় জাতীয় দৈনিক সহ রাজশাহী আন্চলিক পত্রিকা এবং বিভিন্ন অনলাইন পত্রিকাতে প্রকাশিত হয় এ খবরl
স্থানিয় মান্যগন্য ব্যাক্তিসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মিদের বিষয়টি জানিয়ে ও বাড়ি ফেরত পাওয়ার কোন আশ্বাস না পেয়ে ঢাকাতেই পরিবার নিয়ে কঠিন মানবেতর জীবন যাপন করছেন গিয়াসউদ্দিন ও তার পরিবারের সদস্যরাl
গোদাগাড়ী মডেল থানায় অভিযোগ করে ও কোন লাভ হয়নি বরং থানার ওসি (তদন্ত) হিপজুর আলম মুন্সীর ধমক শুনতে হয়েছে এবং থানায় বিভিন্ন হয়রানীর স্বিকার হয়েছেন গিয়াসউদ্দীন ও তাঁর নিলুফা বেগমl
এ ব্যাপারে উক্ত বাড়ির অভিযোগের তদন্ত কর্মকর্তা কাকনহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এ এস আই রবিউলের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান”দেখেন ভাই আমাদের জন্য টিকে আছে সরকার আর সরকার ও জনপ্রতিনিধিদের জন্য টিকে আছি আমরাl আর সেকারনে কোন জনপ্রতিনিধিদের বিরুদ্ধে তদন্ত করা আমার পক্ষে সম্ভব নয়l তাছাড়া আপনার ও পেপারিং করে কোন লাভ হবেনা বলে লাইন কেটে দেন”l
উক্ত বিষয়ে অভিযুক্ত চেয়ারম্যান টুলুর সাথে ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানানঃ আমি কাজিমউদ্দিনের ষ্ট্যাম্প দেখে বাড়ি দখলের নির্দেশ দিয়েছি এটা সত্য তবে উক্ত বাড়ির মালিক গিয়াসউদ্দিন যদি কাজিমউদ্দিনের ষ্ট্যাম্পটি জাল প্রমান করে দিতে পারেন তবে তবে বাড়িটি আমিই ফেরত দিবোl তাছাড়া এব্যাপারে মেম্বার কামাল সরকারই বেশী জানেন তাঁর সাথে যোগাযোগ করলে বাড়িটি উদ্ধার হতে পারে বলে ফোন রেখে দেইl”
এ বিষয় আরো জানতে ঐ ওয়ার্ডের মেম্বার কামাল সরকারের সাথে ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে ফোন বন্ধ থাকার কারনে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নিl
অথচ চেয়ারম্যানের কথা।
অনুযায়ী থানায় অভিযোগ করে মান্যগন্য ব্যাক্তিসহ কাকনহাট পুলিশ ফাঁড়িতে শালিস বসিয়ে বিবাদি কাজিমউদ্দিনের ষ্ট্যাম্প বিভিন্নভাবে পরীক্ষা নিরীক্ষা করাই ষ্ট্যাম্পটি জাল প্রমানিত হলে বিবাদি কাজিমউদ্দিন এক সপ্তাহের মধ্যে বাড়ি ফেরত ও বাড়ির আসবাবপত্র ফেরত দেওয়ার অঙ্গিকার করলে শালিসি কার্যক্রম সমাপ্ত ঘোষনা করার পরও দীর্ঘ ৯ মাস অতিবাহিত হলেও বিবাদী কাজিমউদ্দিন বাড়ি ফেরত দিচ্ছেন না এবং চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম টুলু সহ মেম্বার কামাল সরকার এবং থানা পুলিশ ও বাড়ি উদ্ধারে কোন তৎপর দেখাচ্ছেনা l
এদিকে একমাত্র সহায় সম্বল বাড়িটি হারিয়ে ঢাকায় মানবেতর জীবন যাপন করছেন গিয়াসউদ্দিন ও তাঁর পরিবারl
প্রসঙ্গতঃ গত বছরের নভেম্বরে বিবাদী কাজিমউদ্দিন একটি আড়াইলক্ষ টাকা মূল্যের জাল ষ্ট্যাম্প তৈরী করেন এই মর্মে যে বাদি গিয়াসউদ্দিন তাঁর নিকট হতে আড়াইলক্ষ টাকা নিয়েছেন কিন্তু বিভিন্ন ব্যাক্তিবর্গের শনাক্তকরনে ষ্ট্যাম্পটি জাল এবং ভূয়া প্রমানিত হয়l এ ব্যাপারে বিবাদি কাজিমউদ্দিনের সাথে ফোনে কথা হলে তিনি জানান ঃচেয়ারম্যান টুলু ভাই ও মেম্বার কামাল ভাই অর্ডার দিয়েছে বাড়িতে ঢুকেছি আপনারা কেন আমার পিছু নিয়ে পেপার করছেন?
এমন কথার ভিত্তিতে ষ্ট্যাম্প জাল করে বাড়ি দখল করা কি ঠিক প্রশ্ন করলে কাজিমউদ্দিন বলেন জাল মাল বুঝিনা টুলু ভাই বললেই বাড়ি দিয়ে দিব বলে ফোনের রেখে দিলে আর কথা বলা সম্ভব হয়নিl
এদিকে বসতবাড়ি হারিয়ে চরম মানবেতর জীবনযাপন করছেন ভূক্তভোগীর পরিবার তাঁতেও আইনি কোন সহায়তা করছেন না গোদাগাড়ী মডেল থানা পুলিশ l সূত্রে জানা যায় গোদাগাড়ী মডেল থানাকে রাজনৈতিক জনপ্রতিনিগন হাতিয়ার হিসেবে ব্যাবহার করছেনl যার কারনে নেতা কর্মিদের অপরাধ কোন আমলেই নিচ্ছেনা থানা পুলিশl তাছাড়া নিরঅপরাধ জনগনকেও বিনাদোষে আটক করে হয়রানিসহ গ্রেফতার বানিজ্য চালিয়ে যাচ্ছেন এতে আতংকে রয়েছেন জনসাধারনl
এ বিষয়ে গোদাগাড়ী থানার ওসি (তদন্ত) হিপজুর আলম মুন্সির সাথে ফোনে কথা হলে তিনি জানান থানায় আসুন কথা হবে চা খাওয়ার দাওয়াত রইলো ব্যাস্ত আছি বলে ফোন রেখে দেই

এই রকম আরও খবর দেখুন

সর্বশেষ আপডেট

অ্যার্কাইভ ক্যালেন্ডার
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১