ছাত্রলীগের অপকর্মের সংবাদ প্রকাশের জের, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলার হুমকি দিয়ে আইনী নোটিশ

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাকিবুল ইসলাম রানা ও সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন অমির নানা অপকর্মের সংবাদ প্রকাশ করায় সমকালের সম্পাদক মোজাম্মেল হোসেন, প্রকাশক আবুল কালাম আজাদ ও রাজশাহী ব্যুরো প্রধান সৌরভ হাবিবকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলার হুমকি দিয়ে আইনী নোটিশ পাঠানো হয়েছে। জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাকিবুল ইসলাম রানার পক্ষে রাজশাহী জর্জকোর্টের আইনজীবী হুমায়ন কবির তামিম বৃহস্পতিবার এই আইনী নোটিশ পাঠান।

গত ১৫ সেপ্টেম্বর দৈনিক সমকালে ‘শিবির থেকে ছাত্রদল, এখন রাজশাহী ছাত্রলীগ সভাপতি’ শিরোনামে সমকালের প্রথম পাতায় একটি বিশেষ প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। সেই প্রতিবেদনে রানার অডিও ফাঁস, শিবির-ছাত্রদল হয়ে ছাত্রলীগ সভাপতি হওয়া নিয়ে তথ্য প্রকাশ হয়। একই সঙ্গে ফাঁস হওয়া অডিওতে শোনা যায়, এক নারী কর্মীর কাছে নিজেকে চিটার দলের সর্দার দাবি করে সাকিবুল ইসলাম রানা তাকে কুপ্রস্তাব দেন। পাশাপাশি আরেকজন নারীকে পাঠাতে বলেন রানা। বিনিময়ে ওই নারীকে ছাত্রলীগের বড় পদ দেয়ার প্রস্তাবও দেন। এই অডিও ফাঁস হলে তোলপাড় শুরু হয়। এছাড়া সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন অমির ফেন্সিডিল সেবনের ভিডিও ভাইরালসহ নানা অভিযোগ সংবাদে উঠে আসে। এনিয়ে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ তিন সদস্যর একটি তদন্ত কমিটি করে। সেই তদন্ত কমিটি রাজশাহীতে এসেও বিতর্কের জন্ম দেয়।

আইনী নোটিশে রানার আইনজীবী হুমায়ন কবীর তামিম উল্লেখ করেন, ‘শিবির থেকে ছাত্রদল, ছাত্রদল থেকে এখন রাজশাহী ছাত্রলীগের সভাপতি শিরোনামে মিথ্যা ও বানোয়াট রিপোর্ট মুদ্রণ, লিখন, প্রচার ও প্রকাশ করে ছাত্রলীগ রাজশাহী জেলা শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ও প্রাচীন সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ রাজশাহী জেলার সুনাম, গৌরব ও ঐতিহ্যে আঘাত করে মানহানি করেন। এরূপ মিথ্যা, বানোয়াট ও বিভ্রান্তিকর তথ্য প্রচার ও প্রকাশ করে রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের সভাপতির সুনাম ও সুখ্যাতিতে আঘাত করে মানহানি করেছেন যাহা দেওয়ানী ও ফৌজদারী অপরাধ। যেহেতু আপনি ও আপনারা ইচ্ছাকৃতভাবে ও জ্ঞাতসারে মিথ্যা সংবাদ জ্ঞাত থাকা সত্বেও ছাত্রলীগ রাজশাহী জেলা শাখার ইতিহাস ও ঐতিহ্যে আঘাত করা সহ বাংলাদেশ ছাত্রলীগ এর রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সহ রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের সকল নেতাকর্মীকে অপমান ও অপদ¯’ এবং হেয় প্রতিপন্ন করার অভিপ্রায়ে এরুপ মিথ্যা ও বানোয়াট তথ্য ইলেট্রনিক ডিভাইস ও প্রিন্ট মিডিয়ার মাধ্যমে লিখন, প্রেরণ, প্রচার ও প্রকাশ করেছেন; যাহা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনেও অপরাধ বটে। যেহেতু আপনি এবং আপনারা এরূপ মিথ্যা, বানোয়াট ও অসত্য তথ্য লিখন, প্রেরণ, প্রচার ও প্রকাশ করে দেওয়ানী, ফৌজদারীসহ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে অপরাধ করেছেন বিধায় অত্র নোটিশ প্রাপ্তির সাতদিনের মধ্যে ভুল স্বীকার করে ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস ও প্রিন্ট মিডিয়ার মাধ্যমে ক্ষমা প্রার্থনা করবেন এবং তা প্রচার ও প্রকাশ করবেন। অন্যথায় আপনি/আপনাদের বিরুদ্ধে দেশে প্রচলিত আইনে দেওয়ানী, ফৌজদারী ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

এসব বিষয়ে সমকালের রাজশাহী ব্যুরো প্রধান সৌরভ হাবিব বলেন, ‘ আমরা এখনো এই আইনী নোটিশ হাতে পাইনি। তবে মেসেঞ্জারে অনেকেই আমাকে পাঠিয়েছেন। ছাত্রলীগ সভাপতি সাকিবুল ইসলাম রানা নিজের ফেসবুকেও তা পোস্ট করেছেন। তিনি বলেন, ‘সব ধরণের তথ্য প্রমান সংগ্রহ করেই প্রতিবেদনটি প্রকাশ হয়। এতে অভিযুক্ত জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি সাকিবুল ইসলাম রানা ও সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন অমির বক্তব্য রয়েছে। এই সংবাদ প্রকাশের পর কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে। সেই তদন্ত কমিটি রাজশাহীতে এসে বিতর্কের সৃষ্টি করেছে। যা সমকাল সহ বিভিন্ন গনমাধ্যমে প্রকাশ হয়েছে। আইনী নোটিশের মাধ্যমে পাঠানো এই হুমকিতে আমরা ভীত নই। আমাদের কাছে প্রতিবেদনের স্বপক্ষের সব ধরণের তথ্যপ্রমাণ রয়েছে।

আরইউজের নিন্দা:
এদিকে এক বিবৃতিতে রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি রফিকুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক তানজিমুল হক বলেন, ‘ছাত্রলীগের দুই নেতার বিরুদ্ধে উঠা অভিযোগ ধামাচাপা দিতে গনমাধ্যম কর্মীদের এই লিগ্যাল নোটিশ পাঠিয়ে হুমকি দেয়া হয়েছে। এটা একটি নিন্দনীয় কাজ হয়েছে। মামলার এই হুমকি স্বাধীন গনমাধ্যমের উপর হস্তক্ষেপ। এর তিব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাচ্ছি।

এই রকম আরও খবর দেখুন

সর্বশেষ আপডেট

অ্যার্কাইভ ক্যালেন্ডার
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১