তুরস্কে ছড়িয়ে পড়ছে ভয়াবহ মহামারি মাঙ্কিপক্স

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : তুরস্কে মাঙ্কিপক্স সংক্রমণের ঘটনা বেড়েছে। হঠাৎ করেই দেশটিতে এ ভয়ঙ্কর মহামারি ছড়িয়ে পড়ছে। তুর্কি স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেছেন, ‘তুরস্কে এখন পর্যন্ত পাঁচজন ব্যক্তির শরীরে মাঙ্কিপক্সের সংক্রমণ দেখা গেছে।’

মঙ্গলবার তুর্কি গণমাধ্যম ইয়েনি শাফাকের প্রতিবেদন অনুসারে, ‘রাজধানী আঙ্কারায় মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর বক্তৃতাকালে তুর্কি স্বাস্থ্যমন্ত্রী ফাহরেটিন কোকা বলেছেন যে মাঙ্কিপক্স সংক্রমিত চার ব্যক্তি সুস্থ হয়েছেন। আরেক ব্যক্তি এ ভাইরাস ঘটিত রোগে আক্রান্ত হয়ে আইসোলেশনে আছেন। এখনো মাঙ্কিপক্স সংক্রমণ তীব্র হয়নি।’

স্বাস্থ্য বিষয়ক কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ‘ভয়াবহ মহামারি মাঙ্কিপক্স ইস্যুতে বিশ্বজুড়ে জরুরি স্বাস্থ্য সতর্কতা জারি করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। প্রধানত যৌন মিলন বা যোগাযোগ এবং ত্বক থেকে ত্বকের যোগাযোগের কারণে এ ভাইরাস ঘটিত রোগের জীবানু ছড়ায়। এছাড়া তোয়ালে ও পোশাক ভাগ করে নেওয়ার মাধ্যমেও এ রোগ ছড়ায়।’

মাঙ্কিপক্সের উপসর্গগুলো হলো ফুসকুড়ি, অস্বস্তি, জ্বর, লিম্ফ নোডগুলো ফুলে যাওয়া, ঠান্ডা লাগা, মাথাব্যথা এবং পেশীতে ব্যথা। এ বছর ৭৫ টিরও বেশি দেশে ষোলো হাজারের বেশি মাঙ্কিপক্সের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। এ সময় আফ্রিকা মহাদেশে এ ভয়ঙ্কর মহামারির কারণে পাঁচ ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। এ ভাইরাস ঘটিত রোগটির উৎপত্তিও হয়েছে আফ্রিকায়।

ডব্লিউএইচও’র মহাসচিব তেদ্রোস আধানম গেব্রিয়েসুসর মতে, ‘মাঙ্কিপক্স সংক্রমণের মূল কারণ পুরুষদের সমকামিতা। এ কারণে রোগটি পুরুষদের সাথে যৌন সম্পর্ক রাখে এমন পুরুষদের মধ্যে কেন্দ্রীভূত।’

গত সপ্তাহে তেদ্রোস বলেছিলেন, ‘৯৮ শতাংশ ক্ষেত্রে দেখা গেছে যে সমকামী পুরুষরাই মাঙ্কিপক্সে আক্রান্ত। তবে যেকোনো ব্যক্তি মাঙ্কিপক্সে আক্রান্ত হতে পারেন। এ কারণে ডব্লিউএইচও-এর পরামর্শ হলো মাঙ্কিপক্সের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া দেশগুলোতে শিশু, গর্ভবতী মহিলাসহ অন্যান্য দুর্বল ব্যক্তিদের জন্য আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি হ্রাস করার ক্ষেত্রে পদক্ষেপ নিতে হবে। এছাড়া যাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম তাদের জন্যও একই ধরনের ব্যবস্থা নিতে হবে।’ সূত্র-ইয়েনি শাফাক, জিনহুয়া

এই রকম আরও খবর দেখুন

সর্বশেষ আপডেট

অ্যার্কাইভ ক্যালেন্ডার
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১