নাটোরের উত্তরা গণভবনের গাছ কাটায় তদন্ত শুরু

নাটোর প্রতিনিধি : উত্তরা গণভবনে গাছ কাটার বিষয়ে ৫ সদস্য বিশিষ্টি একটি তদন্ত কমিটি তদন্ত শুরু করেছে। আজ বৃহস্পতিবার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট রাজ্জাকুল ইসলামের নেতৃত্বে গঠিত ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি সকাল থেকে বিকেল তিনটা পর্যন্ত উত্তরা গণভবনে গিয়ে গাছ কাটা বিষয়ে তদন্ত কাজ চালিয়ে যান। তদন্ত কমিটির অন্যান্য সদস্যরা হলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খাইরুল ইসলাম,সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জেসমিন আক্তার বানু, সদর সহকারী কমিশনার (ভূমি) শামিম ভুইয়া, নেজারত ডেপুটি কালেকক্টরেট (এনডিসি) অনিন্দ্য মন্ডল। এসময় সদর উপজেলা বন কর্মকর্তা এবিএম আব্দুল্লাহ উপস্থিত ছিলেন। গণভবনে বিভিন্ন গাছ কাটার স্থান পরিদর্শন শেষে তদন্ত কমিটির প্রধান অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট রাজ্জাকুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান নিয়ম বহিঃর্ভূতভাবে কাটা গাছের তালিকা প্রণয়ন করা হয়েছে। আরো অধিকতর তদন্ত শেষে তিন কার্য দিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন তারা জমা দেবেন। তবে সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে তারা আর কিছু বলতে রাজি হননি। পরিদর্শনে অর্ধশতাধিক গাছ কাটা দেখে বিস্ময় প্রকাশ করেন গণমাধ্যম কর্মীরা। উল্লেখ্য, নাটোরের উত্তরা গনভবনের ভিতরে সম্প্রতি ঝড়ে ভেঙ্গে পড়া এবং মরে যাওয়া দুটি আম, একটি মেহগনি সহ বেশ কিছু গাছের ডালপালার কাটার টেন্ডারের নামে লক্ষ লক্ষ টাকার শত বছরের ঐতিহ্যবাহী তাজা গাছ কেটে ফেলার অভিযোগ পাওয়া গেছে ঠিকাদারের বিরুদ্ধে। আর এই গাছ কাটার কাজে সহযোগিতা করেছেন গনপূর্ত বিভাগের কর্মকর্তা, গনবভনের তত্ত্বাবধায়ক, বন বিভাগসহ বিভিন্ন সরকারী দপ্তরের অসাধু কর্মকর্তারা। গণভবনের নিরাপত্তায় থাকা সিসি টিভি ক্যামেরায় ধরা পড়েছে তাজা গাছ কেটে নেওয়ার দৃশ্য। মাত্র ১৮ হাজার ৪’শত টাকার টেন্ডারের বিপরীতে লক্ষ লক্ষ টাকার প্রায় ১৫ টি তাজা গাছ কেটেছে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার।

এই রকম আরও খবর দেখুন

সর্বশেষ আপডেট

অ্যার্কাইভ ক্যালেন্ডার
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০