ফেনসিডিল বিক্রির অভিযোগ পবা থানার সেই এসআইয়ের বিরুদ্ধে

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহীর পবা থানার মোটর সাইকেলের যন্ত্রাংশ চুরির ঘটনায় পুলিশ লাইনে ক্লোজড এস আই সিরাজুল ইসলামের নামে এবার সিভিলিয়ান স্থানীয় লালন ও একই এলাকার মোটর সাইকেল মিস্ত্রি উজ্জলকে দিয়ে পবা থানার মালখানায় বিভিন্ন মামলায় জব্দকৃত আলামত হেরোইন, গাঁজা,মদ, ইয়াবা, ফেনসিডিল,ভারতীয় এলাচ ,দাঁরুচিনি, জিরা বিক্রি করেছে বলে অভিযোগ তুলেছেন পবা থানার এক পুলিশ সদস্য ।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ঐ পুলিশ সদস্য জানান, থানায় মাল খানার দায়িত্ব একটি অতি গুরুত্বপুর্ণ দায়িত্ব। এই মাল খানায় বিভিন্ন মামলার মালামাল গুরুত্ব পূর্ন্য আলামত হিসেবে রাখা হয়। এস আই সিরাজুল ইসলাম মাল খানার দায়িত্বে থাকাকালীন থানার স্থানীয় লালন ও একই এলাকার মোটর সাইকেল মিস্ত্রি উজ্জলকে দিয়ে উনি ভারতীয় জিরা ও হাজার হাজার বোতল ফেনসিডিল জারকিনে ঢেলে বিক্রি করেছেন। বর্তমানে যে বোতল গুলি রয়েছে তার অধিকাংশ বোতলের ভেতরে পানি ভরে রাখা হয়েছে । তদন্ত করলে এ সমস্ত ঘটনার সত্যতা বের হয়ে আসবে বলে দাবী করেন তিনি।
তবে এস আই সিরাজুল ইসলাম এমন অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, মোটর সাইকেলের যন্ত্রাংশ চুরির ঘটনার সাথে তিনি জড়িত ছিলেন না । তিনি মোটরসাইকেলের পার্টস খুলে মিস্ত্রি উজ্জলকে দিয়ে তার ব্যবহৃত মোটারসাইকেলে লাগিয়েছিল মাএ ।
এবিষয়ে পবা থানার অফিসার ইনচার্জ তদন্ত বলেন, পুলিশ লাইনে ক্লোজড এস আই সিরাজুল ইসলামের নামে আনিত অভিযোগ সম্পূর্ন ভিত্বীহীন। তার বিরুদ্ধে কেউ অপপ্রচার চালাচ্ছে । এর পরেও এস আই সিরাজুল ইসলামের রিরুদ্ধে তদন্ত করা হচ্ছে । তদন্তে তিনি দোষি সাবস্ত হলে তার বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে ।
রাজশাহী জেলা পুলিশ সুপার মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, এস আই সিরাজুল ইসলামের রিরুদ্ধে তদন্ত করা হচ্ছে । তদন্ত প্রতিবেদন হাতে পেলে তার বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে ।

এই রকম আরও খবর দেখুন

সর্বশেষ আপডেট

অ্যার্কাইভ ক্যালেন্ডার
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০