বাগাতিপাড়ায় ৭৯ দিন পর স্কুলছাত্রীর লাশ উত্তোলন

নাটোর প্রতিনিধি: মারা যাওয়ার ৭৯ দিন পর নাটোরের বাগাতিপাড়ার স্কুলছাত্রী দিপা খাতুনের মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কবর থেকে উত্তোলণ করেছে পুলিশ। সোমবার দুপুরে উপজেলার হিজলী পাবনাপাড়া গ্রামের নিহতের ফুপার বাড়ীর পাশের কবর থেকে আদালতের নির্দেশে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট সহকারী কমিশনার (ভুমি) আহসান হাবিব জিতুর উপস্থিতিতে এই মৃতদেহটি উত্তোলন করা হয়। নিহত দিপা খাতুন হিজলী পাবনাপাড়া গ্রামের দুলাল খাঁর মেয়ে। সে সোনাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী ছিল। নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট সহকারী কমিশনার (ভুমি) আহসান হাবিব জিতু ও বাগাতিপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম জানান, প্রায় তিন বছর পূর্বে দীপার মা তার বাবাকে ছেড়ে অন্যত্র চলে যান। এরপর থেকেই দীপা একই গ্রামের ফুপা আব্বাস আলীর বাড়িতে থেকে ফুপা-ফুপুর কাছে বড় হয়। এরই এক পর্যায়ে গত ১৬ জুলাই স্কুলছাত্রী দিপা খাতুনের মৃত্যু হলে তা নিয়ে জনমনে রহস্যের সৃষ্টি হয়। প্রথমে দিপার ফুপা ও তার পরিবারের সদস্যরা জানায় দিপা তার পড়ার ঘরে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে। পরবর্তীতে তারা জানায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে দীপা মারা গেছে। পরে ময়নাতদন্ত ছাড়াই দ্রুত দিপার মৃতদেহটি বাড়ীর পাশে একটি স্থানে কবর দেওয়া হয়। স্থানীয়দের কাছে এলোমেলো কথাবার্তা বলায় তাদের সন্দেহ হলে বিষয়টি পুলিশকে জানানো। পরে নিহতের মা বাদী হয়ে আদালতের কাছে মৃতদেহটি কবর থেকে তুলে ময়না তদন্ত করার জন্য আবেদন করেন। আদালত মৃতদেহটি কবর থেকে তুলে ময়না তদন্তের নির্দেশ দেয়। ফলে সোমবার দুপুরে আদালতের নির্দেশে কবর থেকে মৃতদেহটি উত্তোলন করা হয়।

এই রকম আরও খবর দেখুন

সর্বশেষ আপডেট

অ্যার্কাইভ ক্যালেন্ডার
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১