রাজশাহী নগরে শিক্ষককে জিম্মি করে অর্থ আদায়

নিজস্ব প্রতিনিধি: রাজশাহী নগরের কলাবাগান এলাকায় এক কলেজ শিক্ষককে আটকে রেখে টাকা আদায়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে। আজ বুধবার দুপুরে নিয়ামতপুর ডিগ্রি কলেজের শিক্ষক লুৎফুল হক লক্ষ্মীপুর থেকে কলাবাগান এলাকা দিয়ে যাচ্ছিলেন। তুফান ঘটকের অফিসের সামনে চার তরুন তাকে থামায়। সে কোথায় যাচ্ছে জানতে চায়। ডাক্তারের সিরিয়াল নিয়ে আত্মিয়র বাড়ি যাচ্ছে বলে জানায়। এসময় ওই তরুনেরা তাকে কৌশলে একটি বাড়িতে নিয়ে গিয়ে আটকে রাখে। পরে লুৎফুলকে পরিবারের লোকজনের কাছে ফোনে টাকা চাইতে বাধ্য করে। প্রথমে ৫০ হাজার টাকা চাওয়া হয়। পরে তাদের দাবি ১০ হাজারে নেমে আসে। ফোন পেয়ে পরিবারে লোকজন কিভাবে এবং কোথায় টাকা পাঠাতে হবে জানতে চায়। প্রথমে বলা হয় বন্ধগেট এলাকায় টাকা আনতে। পরে বিকাশের মাধ্যমে তা পাঠাতে বলা হয়। পরিবারে পক্ষ থেকে রাজপাড়া থানা পুলিশ এবং র‌্যাব-৫ এ বিষয়টি জানানো হয়। আটককারী তরুনরা বিষয়টি আঁচ করতে পরে বিকাল পাঁচটার দিকে লুৎফুলকে রেলগেট এলাকায় নিয়ে আসে। সেখানে তার কাছে থাকা চার হাজার টাকা নিয়ে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়। তাকে কাউকে কোনো কিছু না জানাতে বলা হয়। লুৎফুল হক বলেন তিনি ডা. তানজিলা আলমের কাছে চোখের চিকিৎসা করাতে এসেছিলেন। সেখানে সিরিয়াল দিয়ে কলাবাগান এলাকা দিয়ে যাচ্ছিলেন। এসময় তাকে ধরে নিয়ে যাওয়া হয়। বিভিন্ন জায়গা থেকে ফোন যাওয়ায় তারা ভয় পেয়ে যায়। পরে তারা কাউকে কোনো কিছু না জানাতে হুমকি দেয়। এ বিষয়ে রাজপাড়া থানায় একটি জিডি করা হয়েছে। হেতম খাঁ এলাকার বাসিন্দা সোহরাব হোসেন বলেন, ওই এলাকায় প্রতি রাতে এমনকি দিনের বেলায় ছিনতায়ের ঘটনা ঘটে। পুলিশ এর আগে কয়েকজনকে আটক করে। এর পরে কিছুদিন অবস্থার উন্নতি হলেও আবার আগের অবস্থায় ফিরে আসে। এই অপকর্মের সঙ্গে জড়িতরা রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কেন্দ্রীক রোগীর দাললিসহ বিভিন্ন অপকর্মের সঙ্গে জড়িত। ঘোষপাড়ার মোড়ের একটি রেস্টুরেন্টে তাদের নিয়মিত আড্ডা বসে বলে জানান তিনি।

এই রকম আরও খবর দেখুন

সর্বশেষ আপডেট

অ্যার্কাইভ ক্যালেন্ডার
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১