‘রোহিঙ্গাদের ফেরতে সংসদীয় কূটনীতিকে কাজে লাগানো হবে’

উপচার ডেস্ক: রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠাতে সংসদীয় কূটনীতিকে কাজে লাগানো হবে বলে জানিয়েছেন সিপিএ চেয়ারপারসন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। এদিকে, সম্মেলনে সদস্য দেশগুলোর সংসদকে দুর্নীতি প্রতিরোধে আরও সক্রিয় করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এ ক্ষেত্রে সংসদ সদস্যদের বড় ভূমিকা রাখার সুযোগ রয়েছে বলে মনে করেন সম্মেলনে অংশগ্রহণকারী সংসদ সদস্যরা। আজ শুক্রবার রাজধানীর হোটেল রেডিসন ব্লুতে অনুষ্ঠিত এক সেমিনারে এ বিষয়ে তিন দফা সুপারিশ করা হয়েছে। সেখানে দুর্নীতি প্রতিরোধে বিভিন্ন ধরনের কমিশন গঠন, সংসদীয় স্থায়ী কমিটি শক্তিশালী করা ও বিচার বিভাগের স্বাধীনতার ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়েছে। সম্মেলনের অপর এক বৈঠকে নারীর ক্ষমতায়নে ধারাবাহিক কর্মসূচি রাখার সুপারিশ করা হয়েছে। এ ছাড়া জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবেলায় কর্মপরিকল্পনা গ্রহণসহ নানা ইস্যুতে আলোচনা হয়েছে। এই সম্মেলন থেকে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশকারী রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠাতে সংসদীয় কূটনীতিকে কাজে লাগানো হবে বলে জানিয়েছেন সিপিএ চেয়ারপারসন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। সম্মেলন চলাকালে হোটেল রেডিসন ব্লু’র মিডিয়া সেন্টারে এক প্রেসব্রিফিং-এ ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, “সিপিএ’র সদস্য দেশগুলোর সংসদে রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে আলোচনা ও জনমত সৃ্ষ্টিতে সংসদীয় কূটনীতি সহায়ক হবে। এ জন্য আগামী ৫ নভেম্বর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে সিপিসিতে আগত সকল অতিথিদের উপস্থিতিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী একটি বিশেষ সংবাদ সম্মেলন করবেন। যেখানে রোহিঙ্গা সমস্যার সর্বশেষ তথ্য এবং কীভাবে এ সমস্যার দ্রুত স্থায়ী সমাধান করা যায় সে বিষয় তুলে ধরা হবে। সমস্যা সমাধানে সদস্য দেশগুলো সংসদ ও সংসদ সদস্যদের সহায়তাও চাওয়া হবে। এ ছাড়া বিষয়টি সম্মেলনের ৬ষ্ঠ দিনে ‘হোয়াটস ফ্যাক্টরস ফয়েল দি রাইচ অব ডিফারেন্ট কাইন্স অব ন্যাশনালিটি’-তে উথাপন করা হবে। স্পিকার আরও বলেন, “রোহিঙ্গা ইস্যুটি বর্তমানে কেবলমাত্র বাংলাদেশের সমস্যা নয়, এটি একটি আঞ্চলিক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। এ বিষয়ে জাতিসংঘে দেওয়া ভাষণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পাঁচ দফা প্রস্তাব তুলে ধরেছেন। সেটি বিশ্ব জনমত তৈরিতে সক্ষম হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে বিশ্ব নেতাদের অধিকাংশ একমত হয়েছেন। ” তিনি আরও বলেন, “সিপিসিতে অংশগ্রহণকারী সংসদ সদস্যরা সম্মেলন শেষে নিজ নিজ দেশের সংসদে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করতে পারবেন। যাতে বিশ্ব জনমত গঠনে সহায়ক হবে। ” এদিকে, সম্মেলনের তৃতীয় দিনে উৎসব হলে সিপিএ স্মল ব্র্যাঞ্চের কনফারেন্স অব্যাহত ছিল। সেখানে ‘দ্য রোল অব পার্লামেন্ট ইন কমব্যাটিং করাপশান’ শীর্ষক সম্মেলনে দুর্নীতি প্রতিরোধে সংসদের ভূমিকা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। ওই সেমিনারের প্রস্তাব ও সুপারিশমালা তুলে ধরেন সেমিনারের মডারেটর বৃটেনের স্বায়ত্ত্বশাসিত রাষ্ট্র আইল অব ম্যানের স্পিকার জন পটারসন। সংবাদ সম্মেলনে সুপারিশ তুলে ধরার সময় সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদ উপস্থিত ছিলেন। এ সময় জন পটারসন বলেন, “রাষ্ট্র, রাজনীতি ও সম্প্রদায় থেকে যেকোনও মাত্রায় দুর্নীতি দূর করতে আইন প্রণয়ন ও আইনি প্রতিষ্ঠানের সক্ষমতা বৃদ্ধিতে পার্লামেন্টকে অবশ্যই কার্যকর ভূমিকা রাখতে হবে। সরকারের সব ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ মাত্রায় স্বচ্ছতা আনতে এবং দুর্নীতির সংস্কৃতির বিপরীতে নীতি প্রণয়নে সংসদ সদস্যদের একমত হতে হবে। দুর্নীতি প্রতিরোধে প্রতিষ্ঠান স্থাপন, এসব প্রতিষ্ঠানের কাজের ক্ষেত্রে আইনি কাঠামো প্রতিষ্ঠা ও প্রয়োজনীয় বিধির কার্যকর অনুসরণ নিশ্চিত করতে পার্লামেন্ট কার্যকরী ভূমিকা পালন করবে। ” সাংবাদিকদের প্রশ্নের জন পটারসন বলেন, “দুর্নীতি প্রতিরোধে সংসদসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠানগুলোকে স্বাধীনভাবে কাজ করতে দিতে হবে। দুর্নীতি প্রতিরোধকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর সক্ষমতা বৃদ্ধির ওপর জোর দিতে হবে। তাদের প্রতি জনগণের আস্থা নিশ্চিত করতে হবে। ” সংসদ সদস্যরা এ বিষয়ে দৃষ্টান্ত রাখতে পারেন বলে তিনি উল্লেখ করেন। জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবেলা জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবেলায় সিপিএ সদস্য দেশগুলোর একত্রে কাজ করার প্রস্তাব করেছে সিপিএ স্মল ব্রাঞ্চ। গত দুই দিনে এ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। সম্মেলনের মূল অধিবেশনে এই প্রস্তাব অনুমোদন ছাড়াও এ বিষয়ে সুনির্দ্দিষ্ট কর্মপরিকল্পনা চূড়ান্ত করা হবে বলে জানিয়েছেন স্মল ব্র্যাঞ্চের কর্মকর্তারা। এ বিষয়ে স্মল ব্রাঞ্চের ‘ফিনানশিয়াল এবং হিউম্যান রিসোর্স চ্যালেন্স’ শীর্ষক সেমিনারের মডারেটর ও অস্ট্রেলিয়ার দ্বীপ রাষ্ট্র ক্যাপিটাল টেরিটোরিয়ার সংসদ সদস্য ক্রিস স্টিল সাংবাদিকদের বলেন, “জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি আমাদের জন্য বড় সংকট। এটা মোকাবেলায় সম্মিলিতভাবে কাজ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এ জন্য ছোট ছোট দেশগুলোর মধ্যে কারিগরি ও মানবসম্পদকে উৎপাদনশীলতায় পরিণত করতে ছোট ও বড় দেশগুলোর মধ্যে সহযোগিতা বাড়ানো প্রয়োজন। এ বিষয়ে গবেষণার পরিধি বাড়াতে হবে। আগামীতে সে বিষয়ে পদক্ষেপ নেওয়া হবে। ” ক্রিস স্টিল জানান, সেমিনারে সংসদ সদস্যরা জানিয়েছেন, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে দাতা সংস্থার সঙ্গে ছোট দেশগুলোকে বৃহত্তর পরিসরে সহায়তা করার প্রয়োজন। দেশগুলোর মধ্যে সহযোগিতা ও সুযোগ বাড়ানোর প্রয়োজন। এ ক্ষেত্রে বিভিন্ন দেশের সংসদ ও সংসদ সদস্যদের মধ্যে সহযোগিতামূলক সেবা ও সুযোগ তৈরির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সম্মেলনে ‘চ্যালেঞ্জ অব প্রটেকটিং টেরিটরিয়াল ওয়ার্টাস’ শীর্ষক অপর এক সেমিনারে পানিদূষণ নবায়নযোগ্য জ্বালানি ব্যবস্থা নিশ্চিতে সংসদকে কার্যকরী ভূমিকা পালন করার আহ্বান জানানো হয়েছে। সংসদ সদস্য তানজীর ইমাম কালের কণ্ঠকে জানান, অতিরিক্ত মৎস্য আহরণ, চুরি করে মৎস্য শিকার, অবাসস্থল ধ্বংস, দূষণ ও জলবায়ু পরিবর্তনের ন্যায় অন্যান্য হুমকি থেকে সম্পদকে নিরাপদ রাখতে সংসদকে কার্যকরী পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বিভিন্ন দেশের সদস্যরা। তারা সংসদকে আঞ্চলিক জলরাশির গুরুত্ব নির্ধারণ ও প্রাকৃতিক পরিবেশ সমুন্নত রেখে নবায়নযোগ্য জ্বালানি ব্যবস্থা নিশ্চিত করার ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন। নারীর ক্ষমতায়নে ধারাবাহিক কর্মসূচী নারীর ক্ষমতায়ন ও নারী অধিকার নিয়ে কাজ করছে সিপিএভুক্ত সংগঠন কমনওয়েলথ উইমেন পার্লামেন্টারিয়ানস (সিডব্লিউপি)। বৃহস্পতিবার দিনব্যাপী তারা নানা ইস্যু নিয়ে আলোচনা করেছেন। সিডাব্লিউপি প্রতিনিধিরা আজ শুক্রবার জাতীয় মহিলা সংস্থার বিভিন্ন প্রকল্প সরেজমিনে পরিদর্শন করেন। পরে তারা ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে অন স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে যান। সেখানে রোগীদের সঙ্গে কথা বলেন। তারা জাতীয় সংসদের নেওয়া মাতৃস্বাস্থ্য উন্নয়ন ও নিরাপদ প্রসব নিশ্চিতকরণ, বাল্যবিয়ে প্রতিরোধসহ বাংলাদেশের সামগ্রিক নারী উন্নয়নে নেওয়া প্রকল্পগুলো নিয়ে সংসদ ভবনে বৈঠক করেন। এ বিষয়ে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী কালের কণ্ঠকে বলেন, “নারী উন্নয়ন ও নারীর ক্ষমতায়নে বাংলাদেশের সফলতা ওই সকল কর্মসূচিতে ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছে। কিন্তু সংসদে নারী-পুরুষের সমতার ক্ষেত্রে কাঙ্খিত অগ্রগতি হয়নি। এটা শুধু বাংলাদেশ নয়, অধিকাংশ দেশের একই অবস্থা। এ বিষয়ে রাজনৈতিক দলগুলোর সদিচ্ছা এ ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ। জনগণকেও সচেতন করা প্রয়োজন। ” তিনি বলেন, “সিপিএ ধারাবাহিক কর্মসূচি পালন করছে। সিডাব্লিউপি’র প্রস্তাবের আলোকে এই সম্মেলন থেকে নতুন কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করা হবে। সংসদ সচিবালয় সূত্র জানায়, দুপুরে সিডাব্লিউপিকে অবহিতকরণ সভায় সভাপতিত্ব করেন জাতীয় সংসদের প্রধান হুইপ আ স ম ফিরোজ। সভায় হুইপ মাহবুব আরা গিনিসহ সরকারি ও বিরোধীদলীয় নারী সংসদ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। সভায় নারীর উন্নয়ন ও ক্ষমতায়ন, বাল্যবিয়ে প্রতিরোধ, মাতৃমৃত্যু ও শিশুমৃত্যু হার ইত্যাদির বিষয়ে সংসদীয় কার্যক্রম উপস্থাপন করেন সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. আ ফ ম রুহুল হক। এ প্রকল্পের বিষয়ে ১০টি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি কাজ করছে। কাল পৌঁছাবেন সকল প্রতিনিধি আগামীকাল শনিবারের মধ্যে সম্মেলনে অংশগ্রহণকারী সকল প্রতিনিধি ঢাকায় পৌছাবেন সিপিএ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। তারা জানান, সিপিএভুক্ত ৫২টি সদস্য দেশের মধ্যে ৪৪টি কেন্দ্রীয় এবং ১৮০টি প্রাদেশিক সংসদের স্পিকার ও ডেপুটি স্পিকারসহ প্রায় ৬০০ জন সংসদ সদস্য সম্মেলনে অংশ নেবেন। আগামী রবিবার সকাল সাড়ে ১০টায় জাতীয় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্মেলন উদ্বোধন করবেন। সম্মেলনকে সামনে রেখে শুক্রবার সকাল থেকে সিপিএ নির্বাহী কমিটির বৈঠক শুরু হয়েছে। আগামীকাল শনিবারও এই বৈঠক চলবে। নির্বাহী কমিটির বৈঠকে গৃহীত কর্মপরিকল্পনা সম্মেলনের মূল অধিবেশনে উপস্থাপন ও অনুমোদন করা হবে।

এই রকম আরও খবর দেখুন

সর্বশেষ আপডেট

অ্যার্কাইভ ক্যালেন্ডার
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১