শিবির সন্দেহে রাবির দুই শিক্ষার্থীকে ছাত্রলীগের মারধর

শিবির সন্দেহে রাজশাহী বি্শ্ববিদ্যালয় (রাবি) দুই শিক্ষার্থীকে বেধড়ক মারধর করে পুলিশে দিয়েছে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মতিহার হলের ৩০৩ নম্বর কক্ষ থেকে তাদের আটক করা হয়। এ সময় তাদের বেধড়ক মারধর করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

মারধরে আহতদের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাদেরকে রাজাশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে (রামেকে) পাঠানো হয়েছে।

ছাত্রলীগের দাবি আটককৃতদের কাছ থেকে শিবিরের বিভিন্ন ডকুমেন্ট ও শিবিরের নেতাকর্মীদের নামের তালিকা পাওয়া গেছে।

আটককৃতরা হলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী আব্দুল আজিজ ও সমাজকর্ম বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী রুহুল আমিন।

হল সূত্র জানায়, সন্ধ্যা পৌনে ৭টার দিকে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদের নেতৃত্বে নেতাকর্মীরা হলের ৩০৩ নম্বর রুমে তল্লাশি চালায়। এ সময় রুহুল আমিন ও আজিজকে সন্দেহ হওয়ায় বেধড়ক মারধর করে ছাত্রলীগ। মারধরের চিৎকারে হলের শিক্ষার্থীদর মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এরপর তাদের পুলিশে সোপর্দ করেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

রাবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনু বলেন, ‘সন্ধ্যার দিকে হলের সামনে রুহুল আমিন ঘোরাফেরা করছিল। এ সময় তার আচরণে সন্দেহ হওয়ায় তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করি। পরে তার দেওয়া তথ্যে মতিহার হল থেকে আজিককে আটক করে পুলিশে দেওয়া হয়। তাদের কাছে শিবিরের বিভিন্ন নথি পাওয়া গেছে।’

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. লুৎফর রহমান বলেন, ‘বিষয়টি সম্পর্কে অবগত হয়েছি। আহতদের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।’

মতিহার থানার তদন্ত কর্মকর্তা মাহাবুব আলম বলেন, ‘আহত দুজনকে আপাতত রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। পরে জিজ্ঞাসাবাদ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

এই রকম আরও খবর দেখুন

সর্বশেষ আপডেট

অ্যার্কাইভ ক্যালেন্ডার
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১