“স্বাধীনতার পঞ্চাশে বাংলাদেশের গান”

উপচার ডেস্ক : দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম মর্যাদাপূর্ণ সংগীত অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠান ‘ঐক্য-চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ডস’ এর ১৬তম আসর অনুষ্ঠিত হবে সূদুর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে।

আগামী ১৪ নভেম্বর দেশটির নিউ ইয়র্ক শহরে বসবে দেশের সংগীতের সবচেয়ে জমকালো এই অনুষ্ঠান।

সে বিষয়ে বিস্তারিত জানাতেই রোববার রাতে চ্যানেল আইয়ের ৪ নম্বর স্টুডিওতে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে চ্যানেল আইয়ের পরিচালক ও বার্তা প্রধান শাইখ সিরাজ জানান, ১৬তম ঐক্য-চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ডসের স্লোগান ‘স্বাধীনতার ৫০ বছরে বাংলাদেশের গান।’

তিনি বলেন, স্বাধীনতার ৫০ বছরে বাংলাদেশের সংগীতে বিভিন্নভাবে অবদান রেখেছেন এমন ৫০ জন গুণী শিল্পী, সুরকার ও গীতিকারকে প্রদান করা হবে বিশেষ সম্মাননা।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ১৪ নভেম্বর নিউ ইয়র্ক সিটিতে অনুষ্ঠিতব্য এই আসরের প্রথম পর্যায়ের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হবে। সেখানেই দেশের ৫০ জন বিশেষ সম্মাননা প্রাপ্তদের নাম ঘোষণা করা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে শাইখ সিরাজ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ঐক্য ফাউন্ডেশনের সভাপতি শাহীন আক্তার রেনী।

এছাড়া আমেরিকা থেকে ভার্চ্যুয়ালি যুক্ত ছিলেন ইমপ্রেস টেলিফিল্ম ও চ্যানেল আইয়ের পরিচালক এবং চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ডস ২০২১ এর আমেরিকার প্রকল্প প্রধান জহির উদ্দিন মাহমুদ মামুন, কিংবদন্তী রবীন্দ্রসংগীত শিল্পী রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা, সংগীত শিল্পী রথীন্দ্রনাথ রায় প্রমুখ।

ঢাকা থেকে ভার্চ্যুয়ালি আরও যুক্ত ছিলেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম এবং শিল্পী রফিকুল আলম।

এবারের আয়োজনটি বাংলাদেশ থেকে সহযোগিতা করছে ঐক্যডটকমডটবিডি। নিউ ইয়র্ক থেকে সহযোগিতা করবে দেশী মিউজিক এন্টারটেইনমেন্ট। থাকার কথা রয়েছে আরও কিছু প্রতিষ্ঠানের।

শাইখ সিরাজ বলেন, ৫০ জন শিল্পীর পাশাপাশি একজনকে আজীবন সম্মাননা দেয়া হবে। নিউ ইয়র্কে ৫০ জন শিল্পীকে পুরস্কৃত করা ছাড়াও ডিসেম্বর জুড়ে চ্যানেল আইয়ে নানা ধরনের অনুষ্ঠান হবে। এরমধ্যে ঢাকায় আরেকটি আয়োজনের মাধ্যমে বাকি শিল্পীদের পুরস্কৃত করা হবে।

১ জানুয়ারি পূর্ণ আয়োজনটি চ্যানেল আইয়ের পর্দায় প্রচার হবে বলে জানানো হয় সংবাদ সম্মেলনে।

স্বাধীনতার ৫০ বছরের চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ডস এর আসন্ন আয়োজন ভিন্নভাবে সাজানো হয়েছে বলে জানান জহিরউদ্দিন মাহমুদ মামুন।

তিনি বলেন, স্বাধীনতার স্মৃতি হিসেবে ধরে রাখার জন্য এবার আমরা প্রতিযোগিতার মধ্যে যাচ্ছি না। সংগীতাঙ্গনের ৫০ জন বিশেষ গুণী মানুষকে সম্মাননা জানানোই আমাদের উদ্দেশ্য।

নিউ ইয়র্কে করোনা পরিস্থিতি এখনকার মতো নিয়ন্ত্রণে থাকলে ১৪ নভেম্বর শহরের যে কোনো ভেন্যুতে আয়োজনটি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা জানানো হয়।

ঐক্য ফাউন্ডেশনের সভাপতি শাহীন আক্তার রেনী বলেন, আমেরিকাতে এবারের ঐক্য-চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ডস বিশ্ববাসীর কাছে বাংলাদেশকে নতুনভাবে পরিচিত করিয়ে দেবে। বাংলাদেশি সংগীত, গুণীজনদের পাশাপাশি এর মাধ্যমে পরিচিতি পাবে নতুন উদ্যোক্তাদের পণ্য। চ্যানেল আই পরিবারের কাছে কৃতজ্ঞ এমন আয়োজনে আমাদের সাথে রাখার জন্য।

রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা বলেন, ১৬ বছর আগে ঢাকার ইন্টারকন্টিনেন্টালে চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ড স্বপ্নের বীজ বুনে ছিলেন ফরিদুর রেজা সাগর। আজ তার সুফল পাওয়া যাচ্ছে সুদূরে আমেরিকাতে। এই অনুষ্ঠানের ব্যাপ্তি ধীরে ধীরে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে যাচ্ছে। আগামী এই সুনাম অর্জন আরও বৃদ্ধি পাক। এই অ্যাওয়ার্ড সব শিল্পীদের ভালো কাজের প্রেরণা হিসেবে কাজ করে যাচ্ছে। আসন্ন আয়োজনের সার্বিক সাফল্য কামনা করছি।

সংবাদ সম্মেলনটি উপস্থাপনা করেন দিলরুবা সাথী। ঐক্য-চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ডস ২০২১ এর প্রকল্প পরিচালক হলেন ইজাজ খান স্বপন।

দেশের কুটির, ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের বিকাশ এবং এই খাতের টেকসই উন্নয়নে অবদান রাখছে ঐক্য ফাউন্ডেশন। দেশের কুটির, মাইক্রো, ক্ষুদ্র, মাঝারি উদ্যোক্তাদের নিয়ে প্রথম টেলিভিশন অনুষ্ঠান ‘উদ্যোক্তা’ পরিচালনা করছে ঐক্য। বাংলাদেশের ক্ষুদ্র ও মাঝারী উদ্যোক্তাদের সর্ববৃহৎ অনলাইন মার্কেট www.oikko.com.bd তৈরি করেছে ঐক্য ফাউন্ডেশন।

এই রকম আরও খবর দেখুন

সর্বশেষ আপডেট

অ্যার্কাইভ ক্যালেন্ডার
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০